বৃহস্পতিবার১৫ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
Home / বরিশাল / কাউখালী সদর ইউনিয়নের নৌকার মাঝি হয়ে তৃতীয় বার চেয়ারম্যান হতে চান মিল্টন

কাউখালী সদর ইউনিয়নের নৌকার মাঝি হয়ে তৃতীয় বার চেয়ারম্যান হতে চান মিল্টন

পিরোজপুর প্রতিনিধিঃ  আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে পিরোজপুর জেলার কাউখালী উপজেলার সদর ইউনিয়নের পর পর দুই বার নির্বাচিত তরুন চেয়ারম্যান মোঃ আমিনুর রশিদ মিল্টন আওয়ামীলীগের মনোনয়নে নৌকা প্রতীক নিয়ে তৃতীয় বারের মত চেয়ারম্যান হতে চান।
তিনিই উপজেলার প্রথম মুজিব আদর্শের সৈনিক হিসাবে বিপুল ভোটের ব্যবধানে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।
মিল্টন একজন মুজিব আদর্শের পরিক্ষিত সৈনিক এবং এক সম্ভ্রান্ত পরিবারের সন্তান। সে ছাত্রজীবন থেকেই আওয়ামীলীগের রাজনিতীর সাথে জড়িত রয়েছে। স্কুল জীবন থেকেই ছাত্রলীগের একজন কর্মী হিসেবে রাজনৈতিক জীবন শুরু করেন মিল্টন।
তিনি ১৯৯৩-৯৪ সালে সরকারি কাউখালী মহাবিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদ নির্বাচনে জিএস পদে নির্বাচিত হয়ে সাংগঠনিক দ্বায়িত্ব পালন ও সকল গনতান্ত্রিক আন্দোলনে সক্রীয় অংশগ্রহন করেন।
এছাড়া তিনি ১৯৯৫ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কাউখালী উপজেলা শাখার সাধারন সম্পাদক ও ২০০১ সালে সভাপতি পদে ও জেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতির দ্বায়িত্ব পালন করেন। এরপরে ২০১৬ সালে উপজেলা সেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি হিসেবে অদ্যবদি দ্বায়িত্ব পালন করে আসছেন। সম্প্রতি উপজেলা আওয়ামীলীগের কাউন্সিলে মিল্টন তার যোগ্যতার ভিত্তিতে উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক পদ লাভ করেন।
এই তরুন আওয়ামীলীগ নেতা ২০১১ সালে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রথম বার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে তাঁর ইউনিয়নে ব্যপক উন্নয়নমূলক কাজ সহ সাধারন মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে নিরলস ভাবে কাজ করে। তার এই উন্নয়নমূলক কাজের ধারা অব্যাহত রাখার জন্য মিল্টন ২০১৬ সালের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার মাঝি হয়ে দ্বিতীয় বারের মত চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে অংশগ্রহন করেন। উক্ত নির্বাচনে এলাকার সাধারন মানুষ তাদের ভাগ্যের ও এলাকার উন্নয়নের লক্ষ্যে বিপুল ভোটে তাকে দ্বিতীয় বারের মত চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেন।
মিল্টন দ্বিতীয় বার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় গ্রাম পর্যায়ে ব্যপক উন্নয়নমূলক কাজ করেন। অসহায় গরিবদের সরকারি সহায়তার পাশাপাশি ব্যক্তিগত ভাবেও সহায়তা করে আসছেন। তিনি মানুষের নির্ভিঘ্নে পথ চলার জন্য উপজেলার মধ্যে প্রথম তার ইউনিয়নে সড়কের গুরুত্বপূর্ন স্থানের সৌর লাইট স্থাপন করেন। তার ইউনিয়নে বিশেষ করে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন ও বাল্য বিবাহ বন্ধে কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহনে সার্বক্ষনিক এলাকার আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় এবং জনগনের সেবায় কাজ করে যাচ্ছেন। মিল্টন বৈশ্বিক মহামারি করোনকালীন সময়ের প্রথম ধাপ থেকে নিজ ইউনিয়ন সহ উপজেলার কর্মহীন, অসহায় পরিবারের মাঝে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় সরকারি বরাদ্ধের পাশাপাশি ব্যক্তিগত তহবিল থেকে খাদ্য সহায়তা দিয়েছেন। এমনকি রাতের অন্ধকারে নিজে ত্রানের বস্তা নিয়ে মানুষের ঘরে ঘরেন পৌছে দিয়েছেন। মিল্টন এখন এলাকার সাধারন মানুষের কাছে একজন সফল, জনবান্ধব, অহংকার ও আপোষহীন, আস্থাভাজন ভালো মনের মানুষ হিসেবে পরিচিত।
চেয়ারম্যান আমিনুর রশিদ মিল্টন গত শনিবার জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কবর জিয়ারতের মাধ্যমে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের নির্বাচনী প্রচার প্রচারনার কার্যক্রম শুরু করেছেন।
এবিষয় চেয়ারম্যান আমিনুর রশিদ মিল্টন বলেন, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কাউখালী সদর ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের প্রার্থী হিসেবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার অনুমতি নিয়ে নৌকার মাঝী হয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহন করতে চাই। নেত্রী আমাকে নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহনের অনুমতি দিলে এলাকার সাধারন মানুষের ভোটে তৃতীয় বারের মত চেয়ারম্যান নির্বাচিত হব এবং এলাকার সার্বিক উন্নয়নে নিবেদিত হয়ে কাজ করব। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দর্শন “আমার গ্রাম আমার শহর ”এ দর্শন বাস্তবায়নের জন্য লক্ষ্যে এলাকার সকলকে সাথে নিয়ে আমার ইউনিয়নটিকে আদর্শ ইউনিয়ন হিসাবে গড়ে তুলব ইনশাআল্লাহ ।
স,ব/আর